কাতিলা গাম- 250 গ্রাম

কাতিলা গাম- 250 গ্রাম

৳ 250.00

🔷 কাতিলা গাম কি?
কাতিলা গাম (Tragacanth Gum)যাকে কাতিরা গামও বলা হয়। এটা শরীরে শীতল প্রভাব ফেলে। এটি সাদা বা হালকা লাল বর্ণের একটি শক্ত আঠা যা পানিতে কয়েক ঘন্টা ভিজিয়ে রাখলে নরম হয়ে ফুলে উঠে।
গ্রীষ্মের সময় এটি গ্রহণ করা খুব কার্যকর। এটি সাধারণত লেবুর জলে বা মধু মিশিয়ে খাওয়া হয়।
🔷 কেন কাতিলা গাম?
এটা শরীরে গঠিত তাপ শীতল করে। এগুলি ছাড়াও এটা প্রোটিন এবং ফলিক অ্যাসিডের একটি ভাল উৎস যা দেহের স্বাস্থ্য পরিস্থিতি ভালো রাখে। আসুন জেনে নেওয়া যাক কাতিলা গাম ব্যবহারের মাধ্যমে আমরা কি কি ধরনের উপকারিতা পেতে পারি।
🔷 কাতিলা গামের এর স্বাস্থ্য উপকারিতাঃ

 

বিস্তারিত উপকারিতা ও খাওয়ার নিয়ম নিচে লিখা রয়েছে।

Qty:
Compare

Description

কাতিলা/কাতিরা গাম (Tragacanth Gum)

🔷 কাতিলা গাম কি?
কাতিলা গাম (Tragacanth Gum)যাকে কাতিরা গামও বলা হয়। এটা শরীরে শীতল প্রভাব ফেলে। এটি সাদা বা হালকা লাল বর্ণের একটি শক্ত আঠা যা পানিতে কয়েক ঘন্টা ভিজিয়ে রাখলে নরম হয়ে ফুলে উঠে।
গ্রীষ্মের সময় এটি গ্রহণ করা খুব কার্যকর। এটি সাধারণত লেবুর জলে বা মধু মিশিয়ে খাওয়া হয়।
🔷 কেন কাতিলা গাম?
এটা শরীরে গঠিত তাপ শীতল করে। এগুলি ছাড়াও এটা প্রোটিন এবং ফলিক অ্যাসিডের একটি ভাল উৎস যা দেহের স্বাস্থ্য পরিস্থিতি ভালো রাখে। আসুন জেনে নেওয়া যাক কাতিলা গাম ব্যবহারের মাধ্যমে আমরা কি কি ধরনের উপকারিতা পেতে পারি।
🔷 কাতিলা গামের এর স্বাস্থ্য উপকারিতাঃ
১. শারিরীক শক্তি বৃদ্ধি করতে
আপনি যদি শরীরে দুর্বলতা অনুভব করেন বা ন্যূনতম পরিশ্রমে সহজেই ক্লান্ত হয়ে পড়েন তবে কাতিলা গাম আপনার জন্য উপকারী হতে পারে।
২. হিট স্ট্রোক প্রতিরোধ করে
গ্রীষ্মকালীন সময়ে কাতিলা গাম এমন লোকদের হিট স্ট্রোক রোধ করতে পারে যারা গরম আবহাওয়ায় বাইরে থাকতে পারেন না। এটি মিল্কশেক বা শারবাটের মতো ঠাণ্ডা পানীয়তে ভিজিয়ে রেখে প্রতিদিন দুবার খাওয়া যেতে পারে।
৩. কোষ্ঠকাঠিন্যে সহায়তা করে
গন্ড কাটিরা একটি আশ্চর্যজনক রেচাকৃত অর্থাৎ এটি অন্ত্রের আন্দোলনকে সরিয়ে নেওয়ার জন্য উত্সাহিত করতে পারে। যদি আপনি ঘন ঘন কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যার মুখোমুখি হন, তবে প্রতিদিন কাতিলা গাম খাওয়ার চেষ্টা করুন।
৪. গর্ভবতী মহিলা
কাতিলা গাম উচ্চ পুষ্টির মান রয়েছে। এই কারণেই এটি গর্ভাবস্থায় ব্যবহার করা যেতে পারে কারণ কোনও মহিলার তাদের এবং তাদের শিশুর স্বাস্থ্যের জন্য আরও ভাল পুষ্টি প্রয়োজন।
৫. হাত ও পায়ে জ্বালাভাব দূর করে
এটা কিছু লোকের মধ্যে একটি সাধারণ সমস্যা। এটা হাত ও পায়ে জ্বলন্ত সংবেদনকে উন্নত করে। উপরে উল্লেখিত নিয়মে খাওয়া যেতে পারে।
৬. ওজন কমাতে সহায়তা করে
কাতিল গাম ফাইবার সমৃদ্ধ এবং দেহের বিপাক বাড়ানোর বৈশিষ্ট্যযুক্ত। উচ্চ ফাইবারের কারনে তৃপ্তি এবং ক্ষুধা যন্ত্রণ কম অনুভূত হয়। বর্ধিত বিপাকীয় হার স্বয়ংক্রিয়ভাবে দেহের শক্তির প্রয়োজনীয়তা বাড়িয়ে তুলবে যার ফলে চর্বিতে রূপান্তরিত করতে কম সংখ্যক ক্যালোরি থাকবে। সুতরাং, যদি আপনি অতিরিক্ত শরীরের ওজন হারাতে চান বা ওজন রক্ষণাবেক্ষণের ডায়েটে থাকেন তবে এটা আপনাকে অনেকাংশে সহায়তা করতে পারে।
৭. চকচকে ত্বক জন্য ভাল
কাতিলা ত্বকের জন্য দুর্দান্ত কারণ এটিতে দ্রবণীয় ফাইবার রয়েছে যা ত্বকের বর্ণ এবং আভা উন্নত করতে সহায়তা করে।
কাতিলা প্রতিদিন খেলে ত্বকের কুঁচকিকে হ্রাস করে এবং ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা বাড়িয়ে ত্বকের মানসিকতা বৃদ্ধির জন্য ত্বকের অ্যান্টি-এজিং প্রতিকার হিসাবে আশ্চর্যজনকভাবে কাজ করতে পারে।
৮. ইমিউন সিস্টেমের উন্নতি করতে পারে
আপনার যদি বার বার সংক্রমণ হয় যেমন কাশি এবং সর্দি এবং যদি কোনও আপোসযুক্ত প্রতিরোধ ক্ষমতা থাকে তবে কাতিো গাম সেবন করে সংক্রমণের বিরুদ্ধে আপনার প্রতিরক্ষা উন্নতিতে আশ্চর্যজনক ফলাফল পেতে পারেন।
৯. পুরুষদের মধ্যে লিবিডো উন্নত করে
আপনার যদি কম কামশক্তি থাকে বা আপনি তাড়াতাড়ি স্রাব বা নাইটফল থেকে ভোগেন, কাতিলা গাম নিয়মিত ব্যবহার আপনাকে প্রচুর পরিমাণে সাহায্য করতে পারে। পুরুষের বীর্য গাঢ় করতেও সাহায্য করে কাতিলা গাম।
খাওয়ার নিয়মঃ সকালে হাফ গ্লাস পানিতে ১ চা চামচ কাতিলা গাম চূর্ণ ভিজিয়ে রাখতে পারেন এবং ৩/৪ ঘন্টা ভেজানোর পর লেবু বা মধু যোগ করে খেতে পারেন; আবার ১ চা চামচ কাতিলা গামের সাথে হাফ চা চামচ ইসুবগুলের ভূষি, ১ চা চামচ চিয়া সিড, হাফ চা চামচ তালমাখনা ও হাফ চা চামচ তোকমা দানা এবং ২ চামচ মধু সবগুলো একসাথে একগ্লাস পানিতে ৩/৪ ঘন্টা ভিজিয়ে রেখে তারপর খেলে দারুন উপকার হয় এবং সারাদিন শরীর সতেজ অনুভত হয়। কেউ চাইলে দিনে ২ বারও খেতে পারেন, এগুলো সম্পূর্ণ ন্যাচারাল তাই অতিরিক্ত না খেলে কোন পাশ্বপতিক্রিয়া নেই।
পার্শ্বপতিক্রয়াঃ অতিরিক্ত মাত্রায় কাতিলা গাম সেবনে বাত ও সাইটিকা রোগের জন্য ক্ষতিকর।
[তথ্যসুত্রঃ আয়ুর্বেদীয় দ্রব্যগুনসার – বাংলাদেশ বোর্ড অব ইউনানী অ্যান্ড আয়ুর্বেদিক সিস্টেমস্ অব মেডিসিন এবং ইউনানী মেটিরিয়া মেডিকা – প্রিন্সিপাল আব্দুর রক খান ও ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত/পরিমার্জিত]
.
আপনারা আপনাদের স্থানীয় বাজার থেকে সংগ্রহ করতে পারেন বা আমাদের FH SHOP থেকেও নিতে পারেন। FH SHOP এ প্রিমিয়াম কোয়ালিটির কাতিলা গাম পাওয়া যাচ্ছে প্রতি কেজি ১০০০ টাকায়।
.
অর্ডার করতে অনুগ্রহ করে মেসেজ দিন বা সরাসরি কল করুন 01771 503214 – 018 22773325

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “কাতিলা গাম- 250 গ্রাম”

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!
X